default-image

যুক্তরাষ্ট্রের সিনেটের বৈদেশিক কমিটি ৬ মে পূর্ব পাকিস্তানে লড়াই বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত পাকিস্তানকে সব ধরনের সামরিক সাহায্য বন্ধ করার প্রস্তাব গ্রহণ করে। যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের বিরোধিতা উপেক্ষা করেই প্রস্তাবটি মৌখিক ভোটে সিনেটে অনুমোদিত হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তর সিনেটে চিঠি লিখে যুক্তি দিয়েছিল, যুক্তরাষ্ট্র সাহায্য বন্ধ করে দিলে পাকিস্তান-যুক্তরাষ্ট্রের সম্পর্কে বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দিতে পারে। সিনেটররা সে যুক্তি উপেক্ষা করেন। প্রস্তাবে বলা হয়, পূর্ব পাকিস্তানে লড়াই বন্ধ না হলে এবং সেখানে ত্রাণ সুষ্ঠুভাবে বণ্টন করতে না দিলে পাকিস্তানে সব ধরনের সামরিক সাহায্য বন্ধ রাখা উচিত।

সিনেটর ওয়াল্টার মন্ডেল বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের পর যুদ্ধ পূর্ব পাকিস্তানের জনগণকে ভীষণ এক দুর্যোগের
মুখোমুখি দাঁড় করিয়েছে। একমাত্র যুক্তরাষ্ট্র ও অন্যান্য সরকারের জরুরি পদক্ষেপই লাখ লাখ মানুষকে এ অবস্থায় আসন্ন মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করতে পারে।

যুক্তরাজ্যের এজবাস্টন ক্রিকেট গ্রাউন্ডের বাইরে প্রায় দুই হাজার বাঙালি এদিন যুক্তরাজ্য সফররত পাকিস্তান ক্রিকেট দলের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করেন।

বিজ্ঞাপন

ইন্দিরা গান্ধীর আবেদন

ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী এদিন দিল্লিতে বলেন, বাংলাদেশ থেকে আসা ২০ লাখের বেশি শরণার্থীর চাপ পড়েছে ভারতের অর্থনীতিতে। বাংলাদেশের ঘটনাধারার প্রতিক্রিয়া শুধু পশ্চিমবঙ্গে নয়, সারা ভারতে পড়বে। শুধু শরণার্থীদের তদারক করলেই হবে না, যুদ্ধের পর তাদের নিজ দেশে ফিরে যাওয়ার ব্যবস্থাও করতে হবে। তিনি বাংলাদেশের শরণার্থীদের সহযোগিতা করার জন্য নাগরিকদের প্রতি আবেদন জানান।

ভারতের কেন্দ্রীয় পুনর্বাসনমন্ত্রী রঘুনাথ কেশব খাদিলকার দিল্লিতে এক সংবাদ সম্মেলনে বলেন, ফিলিস্তিনি শরণার্থীদের মতো ভারতে আসা বাংলাদেশি শরণার্থীদের ব্যাপারেও জাতিসংঘ দায়িত্ব নিক। এত লোকের ব্যবস্থা করা ভারতের একার পক্ষে সামর্থ্যের বাইরে।

বাংলাদেশি শরণার্থীদের ত্রাণকাজে খোঁজখবর নেওয়ার জন্য জাতিসংঘের শরণার্থীবিষয়ক হাইকমিশনের একটি প্রতিনিধিদল দিল্লিতে আসে। আন্তর্জাতিক রেডক্রসের প্রতিনিধিদলও শরণার্থীদের সমস্যা সরেজমিন দেখার জন্য সুইজারল্যান্ডের জেনেভা থেকে কলকাতায় আসে।

কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয় বাংলাদেশ সহায়ক সমিতির সম্পাদক দিলীপ চক্রবর্তী জানান, বাংলাদেশ থেকে আসা বিশ্ববিদ্যালয়, কলেজ ও বিদ্যালয়ের হাজারখানেক শিক্ষক কাজের জন্য তাঁদের কাছে নাম লিখিয়েছেন।

বাংলাদেশ সহায়ক কমিটি এই দিন নদীয়া ও মুর্শিদাবাদ জেলায় শরণার্থীদের জন্য দুটি বড় ভ্রাম্যমাণ অ্যাম্বুলেন্স দিয়ে প্রাথমিক চিকিৎসা কার্যক্রম শুরু করে। কমিটির পক্ষে পশ্চিমবঙ্গ রেডক্রসের সাবেক চেয়ারম্যান এস সি রায় জানান, বাংলাদেশের বহু গুলিবিদ্ধ মানুষ সীমান্তবর্তী হাসপাতালে ভর্তি আছেন।

ভারতের পররাষ্ট্র দপ্তর জানায়, পাকিস্তানের সঙ্গে যুদ্ধে প্রবৃত্ত হওয়ার ইচ্ছা ভারতের নেই। ভারত পূর্ব পাকিস্তানে সৈন্য পাঠাচ্ছে এবং পূর্ব পাকিস্তানের বিদ্রোহীদের অস্ত্র দিয়ে সহযোগিতা করছে বলে পাকিস্তানের উত্থাপিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন।

বিজ্ঞাপন

অবরুদ্ধ দেশ

সামরিক কর্তৃপক্ষ এদিন ঘোষণা করে যে ঈদে মিলাদুন্নবী উপলক্ষে ৭ মে ভোর সাড়ে ৪টা থেকে দুই দিনের জন্য ঢাকা শহরের সান্ধ্য আইন তুলে নেওয়া হবে।

আখাউড়ায় এদিন পাকিস্তানি সেনাদের সঙ্গে মুক্তিযোদ্ধাদের তুমুল লড়াই হয়। মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তানি সেনাদের পর্যুদস্ত করে আখাউড়ার পার্শ্ববর্তী গঙ্গাসাগর ও উজানিসরের বিরাট এলাকা তাঁদের নিয়ন্ত্রণে রাখেন। পাকিস্তানি সেনারা আখাউড়া ও কুমিল্লার মধ্যে সরাসরি যোগাযোগব্যবস্থা চালুর চেষ্টা চালিয়ে ব্যর্থ হয়।

পশ্চিমাঞ্চলে মুক্তিযোদ্ধারা পাকিস্তান সেনাবাহিনীর চলাচল বিঘ্নিত করতে দুটি গুরুত্বপূর্ণ রেলসেতু বিস্ফোরক দিয়ে উড়িয়ে দেন। বৃহত্তর দিনাজপুর ও রংপুরে পাকিস্তানি সেনাদের ওপর মুক্তিযোদ্ধারা গেরিলা আক্রমণ চালান। দিনাজপুরের ঘোড়াঘাট ও প্রেমতলায় এবং কুড়িগ্রাম ও লালমনিরহাটেও যুদ্ধ হয়।

সূত্র: বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধ: সেক্টরভিত্তিক ইতিহাস, সেক্টর দুই ও সাত; মুক্তিযুদ্ধে প্রবাসী বাঙালি, আবদুল মতিন, সাহিত্য প্রকাশ; দৈনিক পাকিস্তান, ৭ মে ১৯৭১; আনন্দবাজার পত্রিকা, কলকাতা, ভারত, ৭ মে ১৯৭১

গ্রন্থনা: রাশেদুর রহমান