বিজ্ঞাপন
default-image

ব্রিটিশ সংসদীয় প্রতিনিধিদলের নেতা এবং লেবার পার্টির সাংসদ ও সাবেক কমনওয়েলথবিষয়ক মন্ত্রী আর্থার বটমলি ১ জুলাই দিল্লিতে সাংবাদিকদের বলেন, ইয়াহিয়া খানের প্রস্তাবিত রাজনৈতিক সমাধান পূর্ব বাংলার জনগণ প্রত্যাখ্যান করবে। আওয়ামী লীগ ও শেখ মুজিবুর রহমানকে সঙ্গে নিয়েই সংকটের সমাধান করতে হবে, নয়তো কোনো মীমাংসা হবে না। বটমলির বক্তব্যের সঙ্গে প্রতিনিধিদলের অন্য দুই সদস্য লেবার পার্টির সাংসদ রেজিল্যান্ড প্রেন্টিস ও কনজারভেটিভ পার্টির সাংসদ টবি জেসেলও একমত পোষণ করেন।

বাংলাদেশে ধ্বংসযজ্ঞের পেছনে ভারতীয় ইন্ধনের পাকিস্তানি রটনা খারিজ করে দিয়ে বটমলি বলেন, তিনি পূর্ব বাংলার ধ্বংসযজ্ঞ দেখে এসেছেন। সেটা করতে হলে ভারতীয় সেনাদের পূর্ব বাংলার অনেক গভীরে ঢুকতে হতো।

প্রতিনিধিদলের সদস্যরা এই দিন কলকাতা থেকে দিল্লিতে আসেন। তাঁরা ভারতের কেন্দ্রীয় পুনর্বাসনমন্ত্রী আর কে খাদিলকরের সঙ্গে দেখা করে বলেন, রাজনৈতিক দিক থেকে বাংলাদেশের অবস্থা বিপজ্জনক। দ্রুত সমাধান না হলে ভারত-পাকিস্তান সংঘর্ষ বেঁধে যেতে পারে।

পশ্চিম জার্মানির বিচারমন্ত্রী ড. ই হইনসেন এবং দুজন সাংসদ এস ভিউগেন সাইন ও ড. রলফ মাইন শরণার্থীদের অবস্থা নিজ চোখে দেখার
জন্য এই দিন কলকাতায় এসে পৌঁছান। তাঁরা সরেজমিন বারাসাত, বনগাঁ ও সল্টলেক এলাকায় শরণার্থীশিবিরগুলো দেখে রাজ্য ও কেন্দ্রীয় সরকারের কর্মকর্তাদের সঙ্গে আলোচনা করবেন।

পাকিস্তানকে অস্ত্র সাহায্যের প্রতিবাদে কলকাতায় বিভিন্ন ছাত্রসংগঠন ও যুব সংগঠন যুক্তরাষ্ট্র সরকারের বিরুদ্ধে বিক্ষোভ প্রদর্শন করে। এসব সংগঠন কলকাতায় যুক্তরাষ্ট্রের কনসাল জেনারেলের কার্যালয়ের সামনে বিক্ষোভের পর স্মারকলিপি দেয়।

লন্ডনের টাইমস পত্রিকায় প্রকাশিত এক সাক্ষাৎকারে ভারতের প্রধানমন্ত্রী ইন্দিরা গান্ধী বলেন, ক্ষমতা হস্তান্তরের প্রশ্নে প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়ার নতুন পরিকল্পনা পূর্ব বাংলার পরিস্থিতি ভয়াবহ করে তুলবে।

বাংলাদেশের শরণার্থীদের জন্য সোভিয়েত ইউনিয়ন থেকে ৩ হাজার ৫৭৬ টন চাল নিয়ে একটি জাহাজ এদিন কলকাতা বন্দরে পৌঁছায়। সোভিয়েত ইউনিয়ন শরণার্থীদের জন্য ৫০ হাজার টন চাল সাহায্য করেছে।

মুজিবনগর থেকে বিবৃতি

বাংলাদেশ কমিউনিস্ট পার্টির কেন্দ্রীয় কমিটি মুজিবনগরে দেওয়া এক বিবৃতিতে বলে, ইয়াহিয়া খান তাঁর সাম্প্রতিক বেতার ভাষণে গত নির্বাচনে জনসাধারণের রায়কে সম্পূর্ণ অগ্রাহ্য করেছেন এবং বাংলাদেশের ওপর গণবিরোধী সংবিধান চাপিয়ে দিয়ে সামরিক শাসন স্থায়ী করে রাখতে চাচ্ছেন। তিনি যে গণহত্যা ও নির্যাতন চালিয়ে যেতে চান, এই বেতার ভাষণে তা সুস্পষ্টভাবে প্রকাশিত।

বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টির (সাবেক ওয়ালী ন্যাপ) সভাপতি অধ্যাপক মোজাফ্‌ফর আহমদ মুজিবনগর থেকে দেওয়া বিবৃতিতে বলেন, জেনারেল ইয়াহিয়া খান গণতন্ত্রকে শুধু হত্যাই করেননি, ভয় দেখিয়ে গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার নামে বিশ্বকে ধোঁকা দেওয়ার চেষ্টা করছেন।

বাংলাদেশ সরকারের কূটনীতিক প্রতিনিধি কে এম শেহাবউদ্দিন দিল্লিতে এক বিবৃতিতে বলেন, সামরিক জান্তাকে সাহায্য প্রদান ইসলামাবাদের জঘন্য কার্যকলাপকে সরাসরি প্ররোচনা দেওয়ারই শামিল হবে। তিনি যুক্তরাষ্ট্র সরকারকে তাদের সিদ্ধান্ত পুনর্বিবেচনা করার জন্য আবেদন জানান।

মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল এদিন চট্টগ্রামের দেবীপুরে পাকিস্তানি বাহিনীর অবস্থানের ওপর আক্রমণ চালায়। সংঘর্ষে পাকিস্তানি বাহিনীর কয়েকজন হতাহত হয়। মুক্তিযোদ্ধা দলের একজন শহীদ হন।

মুক্তিযোদ্ধাদের একটি দল কুমিল্লার দক্ষিণে পাকিস্তানি বাহিনীর একটি দলকে অ্যামবুশ করে। এতে পাকিস্তানি বাহিনীর কয়েকজন হতাহত হয়।

সূত্র: বাংলাদেশের স্বাধীনতাযুদ্ধ: সেক্টরভিত্তিক ইতিহাস, সেক্টর এক ও দুই; আনন্দবাজার পত্রিকাযুগান্তর, ভারত, ২ ও ৩ জুলাই ১৯৭১

গ্রন্থনা: রাশেদুর রহমান